Sat. Jan 25th, 2020

Sylhetnews71live

Online News Paper

জ্ঞানের নেশায় বিভোর মেয়ে

1 min read

।। শাহীন চৌধুরী ডলি ।।অতিথি প্রতিবেদক।।

বৃটিশ অভিনেত্রী এমা ওয়াটসন। বিখ্যাত হ্যারি পটার সিনেমায় হারমিওনি চরিত্রে অভিনয় করে বিশ্বব্যাপী কোটি ভক্তের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছেন। এমার জন্ম ফ্রান্সে। মেয়েটির যখন মাত্র ৫ বছর বয়স,তার বাবা-মায়ের মধ্যে বিচ্ছেদ ঘটলে জন্মভূমি প্যারিস ছেড়ে যুক্তরাজ্যে পাড়ি জমায়। বাবা-মা দুজনেই আলাদা আলাদাভাবে সংসার পাতেন। ছোট্ট মেয়েটির মনের মধ্যে সারাক্ষণ অভিনেত্রী হওয়ার নেশা। তিনি মাত্র ৬ বছর বয়স থেকেই অভিনেত্রী কিভাবে হওয়া যায় সেই চিন্তায় বিভোর থাকতেন। স্কুলের ফাঁকে ছুটির দিনগুলোতে নানা জায়গায় অডিশন দেন। টিকে গেলে কাজ করেন। লেখাপড়া ও অভিনয় পাশাপাশি চলতে থাকে। এমা ছিলেন স্কুলের নাচের দলের এক পরিচিত মুখ।
এমা অভিনয়ের স্কুলে পড়তো না। সে যখন প্রাথমিক স্কুলের ছাত্রী তখন স্কুলের জিমনেশিয়ামে এক নাটকের জন্য অডিশন নেয়া হয়। মাত্র কয়েকঘন্টার ব্যবধানে সেই নাটকের একটি মুখ্য চরিত্রে অভিনয়ের জন্য মেয়েটি নির্বাচিত হয়। হ্যারি পটার এন্ড দা সরসারার’স স্টোন চলচ্চিত্রের মাধ্যমেই অভিনয় জীবনে প্রবেশ করেন এমা ওয়াটসন। তার জীবনে যেন এক বিরাট বিস্ফোরণ ঘটে যায়। ছোট মেয়েটির অভিনয় করা সিনেমাটি সারা বিশ্বে বিশেষভাবে সারা ফেলে বিখ্যাত হয়ে যায়, সেইসাথে মেয়েটির পরিচিতি বাড়তে থাকে। একটি বিখ্যাত উপন্যাস থেকে নির্মিত ৬টি চলচ্চিত্রেই মেয়েটি অভিনয় করে। ২০০১-২০০৯ পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে অভিনয় করা তার ছবিগুলো সারা বিশ্বে আলোড়ন তুলে তুমুল জনপ্রিয়তা অর্জন করে। মাত্র ১৫ বছর বয়সে এমা ‘ভোগ ‘ সাময়িকীর প্রচ্ছদে স্থান পায়। এমার আগে অন্য কেউ এত কম বয়সে ‘ভোগ’ এর কাভার গার্ল হওয়ার সুযোগ পায়নি।
ছোট এমার জীবনে স্বাভাবিকতার ছিঁটেফোঁটাও ছিলো না। তার কাছে সব কিছুই উচ্চকিত মনে হয়। খ্যাতির সাথে সাথে মেয়েটি নিঃসঙ্গ হতে থাকে। ইচ্ছে করলেই মুক্তভাবে চলাফেরা করতে,সবার সাথে সাধারণভাবে মিশতে পারে না। কনসার্টে যেয়ে অনেকের ভিড়ে,চিৎকার করে গান গেয়ে নেচে কনসার্ট উপভোগ করতে পারে না। অভিনয় করতে করতে বড় হয়ে যাওয়া মেয়েটির মনে বিষাদ ভর করে। তারকাখ্যাতি পেয়েও মনের অস্থিরতা,অশান্তি দূরীকরণে থেরাপি নিতে শুরু করেন। নিজেকে নানাভাবে শান্ত করার চেষ্টায় যোগব্যায়াম শুরু করেন।
এমার অভিনয়ের পাশাপাশি অদ্ভুত নেশাটি ছিলো জ্ঞানের নেশা। ক্যারিয়ারে ব্রেক পেয়ে লেখাপড়া থামায়নি বরং অধিক মনোযোগী হয়ে উঠেছিলো। স্কুলে পড়া জিজ্ঞেস করলে সবার আগে মেয়েটি হাত ওঠাতো। ক্যারিয়ারের তুঙ্গে থাকা অবস্থায়ও পড়ালেখা থামিয়ে দেয়ার কথা মনেও আনেনি। স্কুল ও কাজের মধ্যে চমৎকার সমন্বয় করা মেয়েটি কাজের সময় কাজ এবং পড়ার সময় পড়া চালিয়ে যেতে কঠোর পরিশ্রম করেছে। পরীক্ষার ফলাফলে প্রতিটি বিষয়ে ‘এ’ গ্রেড পেতেন। মেয়েটি স্কুল কলেজের পড়া শেষে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাজীবন শুরু করে। তখন থেকে সে তার জীবনে স্থিরতা খুঁজে পায় এবং ইচ্ছের মূল্য দিতে সাধারণ মানুষ ও শিল্পীদের সাথে যোগাযোগ রাখতে চায়। মেয়েটি মনে করে বাস্তবতার কাছাকাছি থাকা একজন শিল্পীর কর্তব্য। এমার অন্যতম শখ ডায়েরি লেখা। তার ৩০টিরও বেশি ডায়েরি আছে যাতে তিনি অভিনয় নিয়ে স্বপ্ন, যোগব্যায়ামের নানা কৌশল, নতুন পরিচিত ব্যক্তিদের নাম-পরিচয়, বিভিন্ন মানুষদের কাছ থেকে পাওয়া উপদেশ লিখে রাখেন। এমা ওয়াটসনের প্রিয় চলচ্চিত্র ‘নটিং হিল ‘। প্রিয় টেলিভিশন শো ‘ফ্রেন্ডস’।এমা অভিনয়,পড়াশোনার পাশাপাশি হকি, টেনিস, নেটবল খেলতেন। একবিংশ শতাব্দীর প্রথম দশকের সবচেয়ে লাভজনক অভিনেত্রী হিসেবে গিনেজ বুকে নাম লেখান এমা ওয়াটসন। এই সময়ের মধ্যে তার ছবিগুলো বিশ্বব্যাপী আয় করে ৫৪০ কোটি ডলার। ক্লান্তিকে পাত্তা না দেয়া এমা ওয়াটসন এখন পূর্ণবয়সী মডেল,অভিনেত্রী। অভিনয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন মানবিক কর্মকাণ্ডে অংশ নেন।
নিজের বুক ক্লাব ‘আওয়ার শেফারড শেলফ’চালু করেন। জ্ঞানের নেশা এমা ওয়াটসনকে আনন্দে রাখে, উজ্জীবিত রাখে। এমার দারুণ নেশাকে কুর্ণিশ জানাই। নেতিবাচক যে কোন মন্তব্য এড়িয়ে গেলে সেটা ভালো হয় এমনটাই মনে করেন তিনি। মাত্র ত্রিশবছর বয়সী এমা প্রতিবছর ১০ দিনের জন্য মৌনব্রত পালন করেন। কিশোর এবং তরুণ প্রজন্ম চাইলে এমা ওয়াটসনের জীবনী থেকে অনেক কিছু শিখতে পারেন যা নিজেদের জীবনে উপকারে আসবে।

⤵[শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি sylhetnews71live.com.'কে জানাতে ই-মেইল করুন- news.sylhetnews71@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব]
Copyright © Sylhetnews71live.com All rights reserved. | Developed By by Mediaitbd.com.
🔴Share
Facebook

Developed By Mediait